প্রাইভেট ও পাবলিক লিমিটেড কোম্পানির মধ্যে পার্থক্য কি

প্রাইভেট ও পাবলিক লিমিটেড কোম্পানির মধ্যে পার্থক্য কি?

প্রাইভেট ও পাবলিক লিমিটেড কোম্পানির মধ্যে পার্থক্য কি: আজকে আমরা জানবো প্রাইভেট ও পাবলিক লিমিটেড কোম্পানির মধ্যে পার্থক্য কি? এই প্রশ্নের উত্তর পেতে আমাদের এই পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ুন। আশা করি আপনারা এই প্রশ্নের উত্তর ভালো ভাবে বুঝতে পারবেন।

প্রাইভেট ও পাবলিক লিমিটেড কোম্পানির মধ্যে পার্থক্য কি

প্রাইভেট ও পাবলিক লিমিটেড কোম্পানির মধ্যে পার্থক্য কি?

প্রাইভেট কোম্পানিপাবলিক কোম্পানি
প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানিতে নূন্যতম শেয়ারহোল্ডারের সংখ্যা ২জন এবং সর্বোচ্চ সংখ্যা ৫০ জন।পাবলিক লিমিটেডে কোম্পানী নূন্যতম শেয়ারহোল্ডারের সংখ্যা ৭ জন, এবং সর্বোচ্চ সংখ্যা নির্দিষ্ট নয়।
প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানীতে শেয়ার হস্তান্তর ও ক্রয়-বিক্রয়ের ক্ষেত্রে কিছু বিধিনিষেধ থাকে।অন্যদিকে, পাবলিক লিমিটেডে কোম্পানীতে শেয়ার সহজেই হস্তান্তর করা যায়।
প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি জনসাধারণের কাছে শেয়ার এবং ডিবেঞ্চার ও বন্ডসহ কোনো ধরণের ঋণপত্র বিকি্র করতে পারে না।অন্যদিকে, পাবলিক লিমিটেড কোম্পানি আইনী প্রক্রিয়া অনুসরণ করে জনসাধারণের কাছে শেয়ার ও বন্ড বিক্রি করতে পারে।
প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানীতে সার্টিফিকেট অব ইনকর্পোরেশন থাকলেই কোম্পানী তার কার্যক্রম শুরু করতে পারে।অন্যদিকে, পাবলিক লিমিটেডে কোম্পানীতে সার্টিফিকেট অব কমেন্সমেন্ট অব বিজনেজ প্রাপ্তির পরে কোম্পানী তার কার্যক্রম শুরু করতে পারে।
শেয়ার হস্তান্তর ও ক্রয়-বিক্রয়ের ক্ষেত্রে কিছু বিধিনিষেধ থাকে।শেয়ার সহজেই হস্তান্তর করা যায়।
প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানীতে নূন্যতম পরিচালক সংখ্যা ২ জন।অন্যদিকে, পাবলিক লিমিটেডে কোম্পানীতে নূন্যতম পরিচালক সংখ্যা ৩ জন।
বন্ড ও ডিবেঞ্চার বিক্রি প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানীতে অনুমতি নাই।বন্ড ও ডিবেঞ্চার বিক্রি পাবলিক লিমিটেডে কোম্পানীতে অনুমতি আছে।

তো আজকে আমরা দেখলাম যে প্রাইভেট ও পাবলিক লিমিটেড কোম্পানির মধ্যে পার্থক্য কি এবং আরো অনেক বিস্তারিত বিষয় । যদি পোস্ট ভালো লাগে তাহলে অব্যশয়, আমাদের বাকি পোস্ট গুলো ভিসিট করতে ভুলবেন না!

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *