বর্তমান মূল্য ও ভবিষ্যৎ মূল্যের মধ্যে পার্থক্য কি

বর্তমান মূল্য ও ভবিষ্যৎ মূল্যের মধ্যে পার্থক্য কি?

বর্তমান মূল্য ও ভবিষ্যৎ মূল্যের মধ্যে পার্থক্য কি: আজকে আমরা জানবো বর্তমান মূল্য ও ভবিষ্যৎ মূল্যের মধ্যে পার্থক্য কি? এই প্রশ্নের উত্তর পেতে আমাদের এই পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ুন। আশা করি আপনারা এই প্রশ্নের উত্তর ভালো ভাবে বুঝতে পারবেন।

বর্তমান মূল্য ও ভবিষ্যৎ মূল্যের মধ্যে পার্থক্য কি?

বর্তমান মূল্য ভবিষ্যৎ মূল্য
ভবিষ্যতে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ পাওয়ার জন্য বর্তমানে যে পরিমাণ অর্থ বিনিয়োগ করতে হবে, তাকে বর্তমান মূল্য বলে।নির্দিষ্ট মেয়াদ ও সুদের হারে বর্তমানের নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থে মেয়াদপূর্তিতে মূল্য পাওয়া যাবে তাকে ভবিষ্যৎ মূল্য বলে।
বর্তমান মূল্য নির্ধারণ করার কৌশল কে বাট্টাকরণ বলে।ভবিষ্যৎ মূল্য নির্ধারণ করার কৌশল কে চক্রবৃদ্ধিকরণ বলে।
(PV) = FV/(1+k)n(FV) = PV(1+i)n
সময় বেশি হলে বর্তমান মূল্য কমে।সময় বেশি হলে ভবিষ্যৎ মূল্য বাড়ে।
বর্তমান মূল্য ভবিষ্যৎ মূল্য অপেক্ষা কম হয়।ভবিষ্যৎ মূল্য বর্তমান মূল্য অপেক্ষা বেশি হয়।
বর্তমান মূল্য ভবিষ্যৎ মূল্যের উপর নির্ভর করে। ভবিষ্যৎ নগদ প্রভাব জানা না থাকলে বর্তমান মূল্য বের করা যায় না।ভবিষ্যৎ মূল্য বর্তমান মূল্যের উপর নির্ভরশীল। বর্তমান মূল্য জানা না থাকলে ভবিষ্যৎ মূল্য বের করা যায় না।
আর্থিক সম্পদ মূল্যায়নে ব্যবহার করা হয়।বিনিয়োগ হতে কত প্রাপ্তি হবে তা জানার জন্য ব্যবহার করা হয়।
সুদের হার যত বড় হবে, বর্তমান মূল্য তত ছোট হবে।সুদের হার যত বড় হবে, ভবিষ্যৎ মূল্য তত বেশি হবে।
বর্তমান মূল্য নির্ধারণ করার কৌশল কে বাট্টাকরণ বলে।ভবিষ্যৎ মূল্য নির্ধারণ করার কৌশল কে চক্রবৃদ্ধিকরণ বলে।

তো আজকে আমরা দেখলাম যে বর্তমান মূল্য ও ভবিষ্যৎ মূল্যের মধ্যে পার্থক্য কি এবং আরো অনেক বিস্তারিত বিষয় । যদি পোস্ট ভালো লাগে তাহলে অব্যশয়, আমাদের বাকি পোস্ট গুলো ভিসিট করতে ভুলবেন না!

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *