শেয়ার ও ঋণপত্রের মধ্যে পার্থক্য কি

শেয়ার ও ঋণপত্রের মধ্যে পার্থক্য কি?

শেয়ার ও ঋণপত্রের মধ্যে পার্থক্য কি: আজকে আমরা জানবো শেয়ার ও ঋণপত্রের মধ্যে পার্থক্য কি? এই প্রশ্নের উত্তর পেতে আমাদের এই পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ুন। আশা করি আপনারা এই প্রশ্নের উত্তর ভালো ভাবে বুঝতে পারবেন।

শেয়ার ও ঋণপত্রের মধ্যে পার্থক্য কি?

শেয়ারঋণপত্র
ডিবেঞ্চার কোম্পানির ঋণ।অন্যদিকে, শেয়ার কোম্পানির মূলধনের অংশ।
ডিবেঞ্চারহোল্ডার কোম্পানির ঋণদাতা ।অন্যদিকে, শেয়ারহোল্ডার কোম্পানির মালিক।
ডিবেঞ্চারহোল্ডারগণ কোম্পানির পরিচালনায় অংশগ্রহণ করতে পারে না।অন্যদিকে, শেয়ারহোল্ডারগণ কোম্পানির পরিচালনায় অংশ গ্রহণ করিতে পারে।
ডিবেঞ্চারহোল্ডারগণ কোম্পানির ঋণদাতা তাই তাদের ভোট প্রদানের অধিকার নাই।অন্যদিকে, শেয়ারহোল্ডারগণ কোম্পানির মালিক হওয়ায় পরিচালক নিয়োগের জন্য ভোট প্রদান করতে পারে।
ডিবেঞ্চারহোল্ডার শুধু নির্দিষ্ট হারে সুদ পায়। কোন লভ্যাংশ পায় না।অন্যদিকে, শেয়ারহোল্ডার নির্দিষ্ট বা পরবর্তনীয় হারে লভ্যাংশ পায় এবং লোকসান হলে তাও তাদের বহন করতে হয়।
কোম্পানির বিলুপ সাধনের সময় ডিবেঞ্চারহোল্ডারগণের দাবি শেয়ারহোল্ডারগণের আগে পূরণ করা হয়।অন্যদিকে, কোম্পানির সমস্ত প্রকার ঋণ পরিশোধের পর শেয়ারহোল্ডারগণের অবশিষ্ট যে অর্থ থাকে তা থেকে তাদের ফেরত দেওয়া হয়।
সাধারণত ডিবেঞ্চার অর্থ ফেরত দেওয়া হয়।অন্যদিকে, পরিশোধ্য অগ্রাধিকারযুক্ত শেয়ার ছাড়া শেয়ারের অর্থ ফেরত দেওয়া হয় না।

Also Read: শিক্ষিত ও অশিক্ষিত মধ্যে পার্থক্য কি

তো আজকে আমরা দেখলাম যে শেয়ার ও ঋণপত্রের মধ্যে পার্থক্য কি এবং আরো অনেক বিস্তারিত বিষয় । যদি পোস্ট ভালো লাগে তাহলে অব্যশয়, আমাদের বাকি পোস্ট গুলো ভিসিট করতে ভুলবেন না!

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *