Ram ও Rom এর মধ্যে পার্থক্য কি

Ram ও Rom এর মধ্যে পার্থক্য কি?

Ram ও Rom এর মধ্যে পার্থক্য কি: আজকে আমরা জানবো ram ও rom এর মধ্যে পার্থক্য কি? এই প্রশ্নের উত্তর পেতে আমাদের এই পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ুন। আশা করি আপনারা এই প্রশ্নের উত্তর ভালো ভাবে বুঝতে পারবেন।

Ram ও Rom এর মধ্যে পার্থক্য কি

Ram ও Rom এর মধ্যে পার্থক্য কি?

RamRom
RAM এর পূর্ণ রূপ হল “Random Access Memory”।ROM এর পূর্ণ রূপ হল “Read Only Memory”।
RAM কে প্রাথমিক মেমোরি হিসাবে শ্রেণীবদ্ধ করা হয়।ROM কে একটি সেকেন্ডারি মেমরি হিসাবে শ্রেণীবদ্ধ করা হয়।
র‌্যাম এর ডেটা যেকোন সময় সহজেই আপডেট করা যায়Rom র ডেটা কখনই আপডেট হয় না।
RAM হলো প্রাইমারী স্টোরেজ।ROM হলো সেকেন্ডারি স্টোরেজ
Ram একটি Volatile Memory।ROM হল Non-Volatile Memory।
RAM দুই ধরণের হয় SRAM ও DRAMROM চার ধরণের হয়ে থাকে PROM, MROM, EPROM, এবং EEPROM
এটি প্রাইমারি মেমোরি ও ক্যাশে মেমোরি হিসাবে ব্যবহৃত হয়।রম ফার্মওয়্যার (firmware) ও মাইক্রো কন্ট্রোলার হিসাবে ব্যবহার হয়।
এর আকার বড় ও capacity বেশি যেরকম ১ থেকে ২৫৬ জিবি (1-256 GB) হয়।রম এর আকার ছোট ও ধারণাশক্তি কম হয়। যেরকম ১-৮ এমবি (1-8 MB)
RAM এর সাময়িকভাবে ডেটা সংরক্ষণ করার ক্ষমতা রয়েছে কারণ পাওয়ার বন্ধ হলে এর সম্পূর্ণ ডেটা মুছে যায়।যেখানে রম সারাজীবন ডেটা সংরক্ষণ করতে পারে। পাওয়ার বন্ধ হলেও এর ডেটা মুছে যায় না।
RAM কে স্ট্যাটিক এবং ডাইনামিক দুই প্রকারে ভাগ করা হয়েছে।রমকে MROM, PROM, EPROM এবং EEPROM-এ ভাগ করা হয়েছে।
RAM হল একটি উদ্বায়ী বা ভোলাটাইল প্রকৃতির মেমোরিরম হল একটি অ-উদ্বায়ী বা ননভোলাটাইল মেমোরি ।
RAM এর তথ্য(ডাটার সমষ্টি) কম্পিউটার প্রসেসর সরাসরি এক্সেস করতে পারে।ROM এর তথ্য(ডাটার সমষ্টি)কম্পিউটার প্রসেসর সরাসরি এক্সেস করতে পারে না । এর জন্য প্রথমে তথ্য(ডাটার সমষ্টি) কে RAM এ পাঠাতে , তারপর এক্সিকিউট হয়।
RAM Read/write উভয় ক্রিয়াকলাপ করতে সক্ষম।রম শুধুমাত্র রিডিং অপারেশন করতে সক্ষম।

তো আজকে আমরা দেখলাম যে ram ও rom এর মধ্যে পার্থক্য কি এবং আরো অনেক বিস্তারিত বিষয় । যদি পোস্ট ভালো লাগে তাহলে অব্যশয়, আমাদের বাকি পোস্ট গুলো ভিসিট করতে ভুলবেন না!

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *