পৃথিবীর সবচেয়ে বড় দেশ কোনটি

পৃথিবীর সবচেয়ে বড় দেশ কোনটি? – বিস্তারিত

হ্যালো বন্ধুরা আজকে আমরা জানবো “পৃথিবীর সবচেয়ে বড় দেশ কোনটি?”। তো চলুন দেখে নেওয়া যাক:

পৃথিবীর সবচেয়ে বড় দেশ কোনটি
পৃথিবীর সবচেয়ে বড় দেশ কোনটি

পৃথিবীর সবচেয়ে বড় দেশ কোনটি?

পৃথিবীর সবচেয়ে বড় হলো রাশিয়া। রাশিয়া ইউরোপ এবং এশিয়া দুই মহাদেশে অবস্থিত। রাশিয়া পূর্বে সোভিয়েত ইউনিয়নের অংশ ছিলো। ১৯২২ সালে পৃথিবীর প্রথম রাষ্ট হিসেবে সোভিয়েত ইউনিয়ন গঠিত হয়। ১৯৯১ সালের ২৬ হিসেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙ্গে ১৫ টি রাষ্ট্র গঠিত হয়।

আয়তনের দিক থেকে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ১০ টি দেশের তালিকা

ক্রমিক নংদেশআয়তন
রাশিয়া১,৭০,৯৮,২৪৬ বর্গ কি.মি.
কানাডা৯৯,৮৪,৬৭০ বর্গ কি.মি.
চীন৯৫,৯৬,৯৬১ বর্গ কি.মি.
যুক্তরাষ্ট্র৯৫,২৫,০৬৭ বর্গ কি.মি.
ব্রাজিল৮৫,১৫,৭৬৭ বর্গ কি.মি.
অস্ট্রেলিয়া৭৬,৯২,০২৪ বর্গ কি. মি.
ভারত৩২,৮৭,২৬৩ বর্গ কি. মি.
আর্জেন্টিনা২৭,৮০,৪০০ বর্গ কি. মি.
কাজাখস্তান২৭,২৪,৯০০ বর্গ কি. মি.
১০আলজেরিয়া২৩,৮১,৭৪১ বর্গ কি. মি.

Prithibir sobcheye boro desh konti

১. রাশিয়া

রাশিয়া আয়তনে বিশ্বের সর্ব বৃহৎ দেশ যার পূর্ব নাম ছিল সোভিয়েত ইউনিয়ন। এই দেশের রাজধানীর নাম মস্কো। উত্তর এশিয়া ও পূর্ব ইউরোপের বিশাল অংশজুড়ে রাশিয়ার অবস্থান। আয়তনে ইউরোপ মহাদেশের চেয়ে বৃহত্তম দেশ রাশিয়া। এর আয়তন প্রায় ১৭.০৯৮ মিলিয়ন বর্গ কিলোমিটার, যা পৃথিবীর মোট আয়তনের ১১% জায়গা দখল করে আছে।

চীনের মত রাশিয়ার বর্ডারও ১৪ টি দেশের সাথে সংযুক্ত। দেশটির জনসংখ্যা প্রায় ১৪ কোটি। দেশটি খনিজ সম্পদে পরিপূর্ণ তবে তার বেশির ভাগই এখনো উত্তোলন যোগ্য নয়। প্রায় সারাবছরই শৈত্যপূর্ণ অবস্থা থাকার কারনে দেশটি বিশ্বের শীতলতম দেশ হিসেবে পরিচিত।

২. কানাডা

কানাডা হচ্ছে পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম এবং শীতলতম দেশ। এই দেশের রাজধানীর নাম অটোয়া। এটি উত্তর আমেরিকার উত্তরাংশে অবস্থিত। এর আয়তন প্রায় ৯.৯৮৪ মিলিয়ন বর্গকিলোমিটার যা উত্তর আমেরিকা মহাদেশের প্রায় ৪১% এবং পৃথিবীর মোট আয়তনের ৬.৭%। এদেশের আয়তনের তুলনায় জনসংখ্যা খুবই, কম প্রতি বর্গ কিলোমিটারে মাত্র ৪ জন বাস করে এবং মোট জনসংখ্যা প্রায় ৩৫ মিলিয়ন। এছাড়াও এই দেশে ২০২,০৮০ কিলোমিটার সমুদ্র উপকূল রয়েছে যা পৃথিবীর অন্য যে কোনো দেশের তুলনায় দীর্ঘতর সমুদ্রপথ।

৩. আমেরিকা

আমেরিকা বা যুক্তরাষ্ট্র হলো বিশ্বের ৩য় বৃহত্তম এবং সবচেয়ে শক্তিশালী দেশ। এই দেশের রাজধানীর নাম ওয়াশিংটন, ডি.সি.। তবে দেশটির সবচেয়ে বড় ও জনবহুল শহরটি হলো নিউ ইয়র্ক। দেশটি উত্তর আমেরিকায় অবস্থিত। দেশটির আয়তন প্রায় ৯.৮৩৩ মিলিয়ন বর্গ কিলোমিটার যা পৃথিবীর মোট আয়তনের ৬.৫%।

দেশটির দক্ষিণে মেক্সিকো ও উত্তরে কানাডার সাথে সীমান্ত সংযুক্ত আছে এছাড়াও দেশটির পূর্বে আটলান্টিক মহাসাগর এবং পশ্চিমে রয়েছে প্রশান্ত মহাসাগর। আমেরিকার জনসংখ্যা প্রায় ৩৩ কোটি। এই দেশটিকে বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ অর্থনীতির দেশও বলা হয়।

৪. চিন

চীন বিশ্বের ৪র্থ বৃহত্তম এবং এশিয়া মহাদেশের সর্ব বৃহত্তম দেশ। এই দেশের রাজধানীর নাম বেইজিং। এটি প্রায় ৯.৫৯৬ মিলিয়ন বর্গ বর্গকিলোমিটার জায়গা দখল করে আছে, যা পৃথিবীর মোট আয়তনের ৬.৪%। চীনের বর্ডার ১৪ টি দেশের সাথে সংযুক্ত যার মধ্যে পূর্বে আফগানিস্তান, উত্তরে রাশিয়া এবং দক্ষিনে ভিয়েতনাম অন্যতম।

চীনের ভৌগলিক অবসবথা খুবই বৈচিত্র্যময় কারণ এর উত্তর অঞ্চল খুবই শীতল আর দক্ষিনে মরুভূমি। দেশটির জনসংখ্যা প্রায় ১৪০ কোটি। জনসংখ্যার দিক দিয়ে বিশ্বের এক নম্বরে চীন।

৫. ব্রাজিল

বিশ্বের ৫ম বৃহত্তম দেশ হলো ফুটবলের দেশ ব্রাজিল। তবে দেশটি তার নিজস্ব সংস্কৃতি এবং বিশাল অর্থনীতির জন্যও পরিচিত। এই দেশের রাজধানীর নাম ব্রাসিলিয়া। ব্রাজিলের প্রধান ভাষা হল পর্তুগিজ এবং এটি দক্ষিণ আমেরিকার একমাত্র পর্তুগিজভাষী দেশ।

ব্রাজিলের বর্ডার দশটি দেশের সাথে সংযুক্ত। এর আয়তন প্রায় ৮.৫১৫ মিলিয়ন বর্গকিলোমিটার যা দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশের সবচেয়ে বড় দেশ এবং পৃথিবীর আয়তনের মোট ৫.৭%। দেশটির জনসংখ্যা প্রায় ২১ কোটি। এছাড়াও বিশ্বের সবচেয়ে বড় রেইনফরেস্ট আমাজন বনের সবচেয়ে বড় অংশ এই ব্রাজিলেই অবস্থিত।

আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন। যদি বুঝতে পেরে থাকেন তাহলে, শেয়ার করতে ভুলবেন না।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *