মৌলিক অধিকার কাকে বলে,মৌলিক অধিকারের সংজ্ঞা,মৌলিক অধিকার কয়টি?

মৌলিক অধিকার কাকে বলে? | মৌলিক অধিকারের সংজ্ঞা | মৌলিক অধিকার কয়টি?

মৌলিক অধিকার কাকে বলে: আজকে আমরা জানবো মৌলিক অধিকার কাকে বলে? এই প্রশ্নের উত্তর পেতে আমাদের এই পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ুন। আশা করি আপনারা এই প্রশ্নের উত্তর ভালো ভাবে বুঝতে পারবেন।

মৌলিক অধিকার কাকে বলে,মৌলিক অধিকারের সংজ্ঞা,মৌলিক অধিকার কয়টি?
মৌলিক অধিকার কাকে বলে

মৌলিক অধিকার কাকে বলে?

যখন কতিপয় মানবাধিকারকে কোন দেশের সংবিধানে লিপিবদ্ধ করা হয় এবং সাংবিধানিক নিশ্চয়তা (Constitutional guarantees) দ্বারা সংরক্ষণ করা হয় তখন তাদেরকে মৌলিক অধিকার বলা হয়।

মৌলিক অধিকারগুলো সবই মানবাধিকার। তবে এগুলোকে মৌলিক অধিকার বলার কারণ হলো, যেহেতু সংবিধান দেশের সর্বোচ্চ আইন বা মৌলিক আইন এবং ঐ সংবিধানে সংযোজিত অধিকারগুলোও মৌলিক আইনের অংশ এবং এদেরকে বিশেষ সাংবিধানিক প্রক্রিয়ার রক্ষা করা হয়; এদেরকে পরিবর্তন করতে হলে স্বয়ং সংবিধানকে সংশোধন করতে হয়।

Also Read: জৈব যৌগ কাকে বলে

বাংলাদেশের সংবিধানের তৃতীয় ভাগ “মৌলিক অধিকার” অনুসারে বাংলাদেশের নাগরিক হিসেবে প্রত্যেক বাংলাদেশী স্বতঃসিদ্ধভাবে কতিপয় মৌলিক অধিকারের মালিক।

তৃতীয় ভাগ “মৌলিক অধিকার“-এর শুরুতেই ২৬ নং অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, মৌলিক অধিকারের সঙ্গে অসামঞ্জস্যপূর্ণ কোনো আইন করা যাবে না।

আর যদি করা হয়, তবে তা স্বতঃসিদ্ধভাবে বাতিল হয়ে যাবে। এই অনুচ্ছেদ অনুসারে, মৌলিক অধিকারের পরিপন্থী পূর্বেকার সকল আইন সাংবিধানিকভাবে অবৈধ।

মৌলিক অধিকার শারীরিক ও মানসিক সীমানা সংকোচনকারী কৃত্রিম বাধা অতিক্রম করে মুক্তি ও ন্যায়বিচারের পরিবেশ নিশ্চিত করে নাগরিকদের জীবন মর্যাদাপূর্ণ করে। স্বাধীন বিচারব্যবস্থা ও শক্তিশালী গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানসমূহ নাগরিক অধিকার লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে সর্বোত্তম রক্ষাকবচ।

মৌলিক অধিকার কয়টি?

সংবিধানের চতুর্থ পরিচ্ছেদের ১০২ অনুচ্ছেদ সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগকে মৌলিক অধিকার বলবৎ করার এখতিয়ার দিয়েছে। বাংলাদেশের সংবিধান অনুসারে প্রত্যেক বাংলাদেশীর মৌলিক অধিকার ১৮টি

১৮টি মৌলিক অধিকার

১৮টি মৌলিক অধিকার নিম্নরুপঃ

  1. আইনের দৃষ্টিতে সমতা (অনুঃ ২৭)
  2. ধর্ম প্রভৃতি কারণে বৈষম্য (অনুঃ ২৮)
  3. সরকারী নিয়োগ লাভে সুযোগের সমতা (অনুঃ ২৯)
  4. বিদেশী খেতাব প্রভৃতি গ্রহণ নিষিদ্ধকরণ (অনুঃ ৩০)
  5. আইনের আশ্রয় লাভের অধিকার (অনুঃ ৩১)
  6. জীবন ও ব্যক্তি স্বাধীনতার অধিকার রক্ষণ (অনুঃ ৩২)
  7. গ্রেফতার আটক সম্পর্কে রক্ষাকবচ (অনুঃ ৩৩)
  8. জবরদস্তি শ্রম নিষিদ্ধকরণ (অনুঃ ৩৪)
  9. বিচার ও দণ্ড সম্পর্কে রক্ষণ (অনুঃ ৩৫)
  10. চলাফেরার স্বাধীনতা (অনুঃ ৩৬)
  11. সমাবেশের স্বাধীনতা (অনুঃ ৩৭)
  12. সংগঠনের স্বাধীনতা (অনুঃ ৩৮)
  13. চিন্তা ও বিবেকের স্বাধীনতা (অনুঃ ৩৯)
  14. পেশা ও বৃত্তির স্বাধীনতা (অনুঃ ৪০)
  15. ধর্মীয় স্বাধীনতা (অনুঃ ৪১)
  16. সম্পত্তির অধিকার (অনুঃ ৪২)
  17. গৃহ ও যোগাযোগের রক্ষণ (অনুঃ ৪৩)
  18. মৌলিক অধিকার বলবৎকরণের অধিকার (অনুঃ ৪৪)

রাষ্ট্রে অবস্থানরত নাগরিক ও বিদেশীদের মৌলিক অধিকার

ক. রাষ্ট্রে অবস্থানরত নাগরিক ও বিদেশী উভয়ে ভোগ করতে পারে। এরূপ মৌলিক অধিকার ৬টি। এগুলো হলো:
১. জীবন ও ব্যক্তি স্বাধীনতার অধিকার (অনুঃ ৩২)।
২. গ্রেফতার ও আটক সম্পর্কে রক্ষাকবচ (অনুঃ ৩৩)।
৩. জবরদস্তি শ্রম নিষিদ্ধকরণ (অনুঃ ৩৪)।
৪. বিচার ও দন্ড সম্পর্কে রক্ষণ (অনুঃ ৩৫।
৫. ধর্মীয় স্বাধীনতা (অনুঃ ৪১)।
৬. সংবিধানিক প্রতিকার পাওয়ার অধিকার (অনুঃ ৪৪)।

Also Read: জাবেদা কাকে বলে?

Also Read: বর্গমূল কাকে বলে

শুধুমাত্র বাংলাদেশের নাগরিকরা ভোগ করতে পারে- এরুপ মৌলিক অধিকার ১২টি। এগুলো হলো- ২৭, ২৮, ২৯, ৩০, ৩১, ৩৬, ৩৭, ৩৮, ৩৯, ৪০, ৪২ এবং ৪৩ অনুচ্ছেদে বর্ণিত অধিকারসমূহ।

মৌলিক অধিকারের সংজ্ঞা?

“মৌলিক অধিকার বলতে বুঝায়, কোনো মানবাধিকার যখন কোন দেশের সংবিধানে লিপিবদ্ধ করা হয় এবং সাংবিধানিক নিশ্চয়তা [Constitutional Guarantee] দিয়ে সংরক্ষণ করা হয় তখন সেগুলো মৌলিক অধিকার হিসেবে গণ্য করা হয়।

See More

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *