তথ্য ও উপাত্ত কাকে বলে,তথ্য ও উপাত্তের মধ্যে পার্থক্য

তথ্য ও উপাত্ত কাকে বলে? | তথ্য ও উপাত্তের মধ্যে পার্থক্য

তথ্য ও উপাত্ত কাকে বলে: আজকে আমরা জানবো তথ্য ও উপাত্ত কাকে বলে? এই প্রশ্নের উত্তর পেতে আমাদের এই পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ুন। আশা করি আপনারা এই প্রশ্নের উত্তর ভালো ভাবে বুঝতে পারবেন।

তথ্য ও উপাত্ত কাকে বলে,তথ্য ও উপাত্তের মধ্যে পার্থক্য
তথ্য ও উপাত্ত কাকে বলে

তথ্য ও উপাত্ত কাকে বলে?

সংগৃহীত উপাত্ত প্রক্রিয়াকরণের পর প্রয়োজন মত সাজানো বা অর্থপূর্ণ অবস্থাকে তথ্য বলা হয়।আর যে কোনো গবেষণার কাজে সংশ্লিষ্ট অনুসন্ধান ক্ষেত্র থেকে জরিপের মাধ্যমে যে সংখ্যাবাচক পরিমাপ সংগ্রহ করা হয় তাকে উপাত্ত বলে ৷

তথ্য কাকে বলে?

উপাত্তের সঠিক প্রক্রিয়াকরণের মাধ্যমে তথ্য (Information) পাওয়া যায়। যখন কোনো উপাত্ত কোনো ঘটনা, প্রেক্ষাপট বা পরিস্থিতির সাথে সংযুক্ত হয় তখন তাকে তথ্য বলে। তথ্যসমূহ অর্থপূর্ণ। যেমন: রিমি ও মেয়ে আলাদাভাবে দুটি উপাত্ত যার নিজস্ব কোনো অর্থ নাই। কিন্তু যদি “রিমি একটি মেয়ে” বলা হয় তবে সেটি অর্থপূর্ণ হয়। যেটিকে রিমি সম্পর্কিত তথ্য বলা যায়। তথ্যকে বিশ্লেষণ করলে জ্ঞান পাওয়া যায়। প্রযুক্তির অগ্রগতিতে তথ্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

উপাত্ত কাকে বলে?

ইনফরমেশন বা তথ্যের ক্ষুদ্রতম এককই হচ্ছে উপাত্ত (Data)। নির্দিষ্ট ফলাফল পাওয়ার জন্য এই উপাত্ত ব্যবহার করা হয়। উপাত্তের নিজস্ব কোনো অর্থ নেই। উপাত্ত বিভিন্ন ঘটনা, প্রেক্ষাপট বা পরিস্থিতির সাথে যুক্ত হয়েই অর্থপূর্ণ হয়। যেমন ১ একটি সংখ্যা যার নিজস্ব কোনো অর্থ নেই। এটি একটি উপাত্ত। এটি তখনই অর্থপূর্ণ হবে যখন এটি দ্বারা কারও রোল নাম্বার অথবা অর্থযুক্ত কিছু বোঝানো হবে।

তথ্য, উপাত্ত ও জ্ঞানের মধ্যে সম্পর্ক কি?

তথ্যের ক্ষুদ্রতম একক হলো উপাত্ত। আর এই উপাত্তের সাথে কোনো ঘটনা বা প্রেক্ষাপট বা পরিস্থিতির সংযোগে তৈরি হয় তথ্য। উপাত্ত অর্থহীন থাকে, কিন্তু উপাত্ত যখন তথ্যে রূপান্তরিত হয় তখন সেটি অর্থবহ হয়ে যায়। আর এই অর্থবহ তথ্যকে বিশ্লেষণ করলেই জ্ঞান পাওয়া যায়। সেই জন্যেই বলা যায় উপাত্ত থেকে তৈরি হয় তথ্য, আর এই তথ্য থেকে তৈরি হয় জ্ঞান। যেমন ৬ষ্ঠ একটি উপাত্ত, কিন্তু যদি বলা হয় রিমি ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ে তাহলে সেটি হয় তথ্য। অর্থাৎ তথ্য থেকে প্রাপ্ত জ্ঞান হলো রিমি ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী।

Also Read: পীড়ন কাকে বলে

তথ্য ও উপাত্তের মধ্যে পার্থক্য

উপাত্ত এবং তথ্যকে আপাতদৃষ্টিতে এক মনে হলেও এদের মধ্যে সূক্ষ্ম কিছু পার্থক্য বিদ্যমান। তথ্য ও উপাত্তের মধ্যে পার্থক্য:

তথ্যউপাত্ত
ডেটাকে প্রক্রিয়াকরণ করে যে অর্থবহ অবস্থা পাওয়া যায় তাকে তথ্য বলেঅগোছালো অবস্থায় থাকা যে কোনো বর্ণ,চিহ্ন বা সংখ্যা এসব কিছুই হলো ডেটা
তথ্য হলো প্রক্রিয়াকরণের পরের অবস্থা যা কম্পিউটারে আউটপুট হিসেবে ব্যবহৃত হয়ডেটা হলো প্রক্রিয়াকরণের পূর্ব অবস্থা কম্পিউটারে যা ইনপুট হিসেবে ব্যবহৃত হয়
সকল ডেটা তথ্য নয়সকল তথ্যই ডেটা
যে কোন তথ্য থেকে সংশ্লিষ্ট বিষয় সম্পর্কে পূর্ণাঙ্গ ধারণা পাওয়া যায়ডেটা কোনো কিছুর পূর্ণাঙ্গ বা অর্থবহ ধারণা দিতে পারে না
তথ্য সম্পূর্ণভাবে ডেটার উপর নির্ভরশীল এবং ডেটা ছাড়া তথ্য প্রক্রিয়াকরণ করা যায় নাডেটা তথ্যের উপর নির্ভর করে না
কোন বিদ্যালয়ের একটি ছাত্রের নাম,রোল নম্বর,সবগুলো বিষয়ের নম্বর এবং তার ভিত্তিতে প্রাপ্ত মোট নম্বর এ সব কিছু একত্রে ছাত্রটির সুনির্দিষ্ট কোন ইনফরমেশন বা তথ্যকে নির্দেশ করেকোনো ছাত্রের ভিন্ন বিষয়ে প্রাপ্ত নম্বরগুলো পৃথক পৃথকভাবে ডেটার উদাহরণ হতে পারে

তো আজকে আমরা দেখলাম যে তথ্য ও উপাত্ত কাকে বলে এবং আরো অনেক বিস্তারিত বিষয় । যদি পোস্ট ভালো লাগে তাহলে অব্যশয়, আমাদের বাকি পোস্ট গুলো ভিসিট করতে ভুলবেন না!

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *